Breaking News
Home / News / খেজুর গাছের কাটা দিয়ে বানানো হল জাল, আর সেই জাল দিয়ে পুকুরে টান দিতেই কাটায় বিধল অনেক মাছ, অবিনব কায়দাই এই মাছ ধরার ভিডিওটি তুমুল ভাইরাল।

খেজুর গাছের কাটা দিয়ে বানানো হল জাল, আর সেই জাল দিয়ে পুকুরে টান দিতেই কাটায় বিধল অনেক মাছ, অবিনব কায়দাই এই মাছ ধরার ভিডিওটি তুমুল ভাইরাল।


খেজুর পরিবেশবান্ধব, স্থানসাশ্রয়ী একটি বৃক্ষ প্রজাতি। এ প্রজাতি দুর্যোগ প্রতিরোধী বিরূপ প্রাকৃতিক পরিবেশেও টিকে থাকতে পারে। খেজুর রস ও গু’ড় বিক্রি করে খামা’রির আর্থিক লাভ ও স্বাবলম্বী হওয়ার দৃষ্টান্ত বেশ সুপ্রাচীন।

গ্রামীণ অর্থনীতি এবং মৌসুমি কর্মসংস্থানে খেজুর গাছের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে। বিশেষ করে শীতকালে বাংলাদেশের সর্বত্রই খেজুর রস, খেজুর গু’ড় দারিদ্র্য বিমোচনসহ বাঙালি সাংস্কৃতিতে রসঘন আমেজ লক্ষ করা যায়।

কুটির শিল্পে খেজুরের পাতার ব্যাপক ব্যবহার ও কদর রয়েছে। খেজুর পাতা দ্বারা তৈরি করা রকমা’রি হাত পাখা, লছমি, ঝাড়–, ঝুড়ি, থলে, ছিকা ও নানা রকম খেলনা এখনও অতি সমা’দৃত।

খেজুর পাতার পাটির কদর ঘরে ঘরে। খেজুর পাতা দিয়ে নকশি পিঠা করা হয়। কুমোড়দের শীত মৌসুমে খেজুরের রস ধারণ করার হাঁড়ি তৈরির হিড়িক বাড়ায়।

খেজুর বৃক্ষ ও ভেষজ গু’ণাগু’ণ : সর্দি-কাশি নিরাময়ে খেজুর ফল উপাদেয়। খেজুরের পাতা রোগ নিরাময়ে ব্যবহার হয়ে থাকে। হৃদরোগ, জ্বর ও উদরের সমস্যা সমাধানে বেশ কার্যকর। গাছের শিকড় দাঁত ও মাড়ির প্রদাহ নিবারণে ব্যবহৃত হয়। রস মুখে রুচি আনে।

খেজুর বৃক্ষ ও জ্বা’লানি কাঠ : খেজুর গাছ গ্রামীণ পরিবারের জ্বা’লানি দেয়। গৃহের নানা কাজে যেমন তক্তা, আড়া, খুঁটি তৈরি ইত্যাদি কাজে ব্যবহৃত হয়। খেজুর কাঠ আঁশযুক্ত বলে এর দাহ্য ক্ষমতা অনেক বেশি। তাই গ্রামগঞ্জে খেজুর লাকড়ির সমা’দর রয়েছে।

খেজুর বৃক্ষ ও উপজাতি সম্প্রদায় : খেজুর রস বাংলাদেশের উপজাতি সম্প্রদায়ের প্রিয় পানীয়, বাড়তি শক্তির জোগান দেয়। শীতকাল তাদের কাছে বেশ স্মৃ’তিঘন। নতুন চাল আর গাঁজনকৃত খেজুর রস

বিশেষ এক ধরনের আনন্দের আয়োজন, মানসিক তৃ’প্তি। খেজুর গাছ খরা সহ্য করে বিধায় বরেন্দ্র অঞ্চলে খেজুর গাছের চাষ প্রচলন বেশ লক্ষণীয়।

মাছ একটি শীতল র’ক্তবিশিষ্ট মেরুদ’ণ্ডী প্রাণী যার শ্বা’স-প্রশ্বা’সের জন্য ফুলকা রয়েছে,চলাচলের জন্য যুগ্ম অথবা অযুগ্ম পাখনা রয়েছে,এদের দে’হে সচরাচর আঁইশ থাকে,সাধারণত এরা জলকেই বসবাসের মাধ্যম হিসেবে গ্রহণ করে থাকে।

সাধারণত এদের দে’হের বহির্ভাগ আঁশ দ্বারা আচ্ছাদিত; তবে আঁশ নেই এমন মাছের সংখ্যাও একেবারে কম নয়। এরা সমুদ্রের লোনা জল এবং স্বাদু জলের খাল, বিল, হাওর, বাওর, নদী, হ্রদ, পুকুর, ডোবায় বাস করে।

সম্প্রীতি দেখা যাই যে,খেজুর গাছের কা’টা দিয়ে বানানো হল জাল, আর সেই জাল দিয়ে পুকুরে টান দিতেই কা’টায় বিধল অনেক মাছ, অবিনব কায়দাই এই মাছ ধ’রার ভিডিওটি তুমুল ভাইরাল।

About admin2

Check Also

চার যুগ অপেক্ষা, অবশেষে প্রথম সন্তানের মা হলেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা! বিস্তারিত ভিতরে:

Binodontimes সাধারণত ৫০ বছর বয়সে অনেকে নাতি-নাতনিদের সঙ্গে সময় কাটান। আর ৭০ বছর হলে তো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *