Breaking News
Home / News / ঘরে শুয়ে ছিলেন ছোট্ট শিশু, হটাৎ ফোঁস করে বেরিয়ে আসল বিষধর কোবরা, ঘটল বিপত্তি, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

ঘরে শুয়ে ছিলেন ছোট্ট শিশু, হটাৎ ফোঁস করে বেরিয়ে আসল বিষধর কোবরা, ঘটল বিপত্তি, তুমুল ভাইরাল ভিডিও


সাপ খুব ভয়ঙ্কর একটি প্রাণী। তবুও আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এদের ভিডিও বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করে নেয়। সাপকে ভয় পায় না এমন মানুষ হয়তো পৃথিবীতে খুঁজলে একটাও পাওয়া যাবে না। কারণ সাপের থেকে সব সময় শতহস্ত দূরত্ব বজায় রাখতে চায় সাধারণ মানুষ।

সাপের একটা কামড়ে প্রা-ণঘা-‘তী হওয়ার আশঙ্কা থাকতে পারে। সর্বাধিক বিষহীন সাপের পৃথিবীতে অস্তিত্ব রয়েছে। কম সংখ্যক সাপ অত্যন্ত বিষধর হয়। তাদের বিষ সত্যিই ভয়ানক। বর্তমানে গ্রামে গঞ্জে বহু মানুষ সাপ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। তাদের পেশা হলো সাপ ধরা। সাপ ধরতে প্রচুর সাহসের প্রয়োজন।

কিন্তু তাদের মনেও থাকে ভয়। জীবন-জীবিকা সংসারকে বাঁচিয়ে রাখতে বেছে নিতে হয় সাপ ধরার পথ। তাই বেশ কিছু গাছের শিকর বাকর নিয়ে সাপ ধরতে বেরিয়ে পড়েন তারা। সাপ ধরে বিষ বিক্রি করে বিষহীন সাপ নিয়ে বাড়ি বাড়ি খেলা দেখিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন তারা!

সম্প্রতি ইউটিউবে একটি সাপ ধরার ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। “নাগ লোক” নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে পোস্ট করা হয়েছে সেই ভিডিও। যা দেখে যে কোন মানুষ শিউরে ওঠার জোগাড়। ঘরের মধ্যে শুয়ে ছিল একটি ছোট্ট শিশু। পাশের ঘরেই বিষাক্ত কোবরা। ঈশ্বরের কৃপায় প্রাণে বেঁচে গিয়েছে ছোট্ট শিশুটি।

কারণ যেকোন সময় ঘটে যেতে পারত যে কোন ধরনের বিপদ। সাম্প্রতিক এমনই একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। অবশেষে ওই সাপটিকে উদ্ধার করতে ডাকা হয় এক উদ্ধারকারীকে। ইউটিউবে পোস্ট করা ভিডিওটির প্রথমে দেখা যায়, একটি প্রত্যন্ত গ্রামে সাপ ধরতে এসেছেন এক ব্যক্তি।

অলিগলি ঘুরে যে বাড়ির ভিতরে সাপ লুকিয়ে আছে সেখানে পৌঁছে যান তিনি। বাড়ির লোকজনের সঙ্গে কথা বলে তিনি জানতে পারেন স্টোর রুমের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে বিষাক্ত এক কোবরা। সেই ঘরের মধ্যে কিছু কিছু জায়গায় খোঁড়াখুঁড়ি করেও সাপ দেখতে পেলেন না ওই ব্যক্তি। অবশেষে বোঝাই করে রাখা বস্তার ফাঁকে মিলল সেই বিষধর কোবরা।

যা দেখে রীতিমতো চমকে যায় আসে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনেরা। ঠিক সেই সময় সাপটি পালিয়ে যেতে যাবে, তখনই সাপের লেজ ধরে নেন সাপ ধরতে আসা ওই ব্যক্তি। সাপের লেজ ধরে ধীরে ধীরে একটি লাঠি দিয়ে সাপটিকে টেনে বার করে নেন তিনি। এরপর নিজের থেকে নিরাপদ

দূরত্ব বজায় রেখে এক হাতে সাপটিকে ধরে অন্য হাতে লাঠি দিয়ে আটকে ঘর থেকে বের করে আনেন তিনি। যেকোনো সাপটি ছিল তার পাশের ঘরে শুয়ে ছিল একটি ছোট্ট শিশু। কপাল জোরে বেঁচে গিয়েছে সে। যেকোনো সময় অঘটন ঘটে যেতে পারত। বাড়ির লোকজন বিষয়টি টের পাওয়ায় প্রাণে বেঁচে গিয়েছে শিশুটি।

সাপ ধরার দৃশ্য দেখতে ওই এলাকায় প্রচুর জনসমাগম হয়। এরপর সাপটিকে নিয়ে মাঝ রাস্তায় এসে উপস্থিত হন ওই ব্যক্তি। পাশে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা লোকজন এদের মধ্যে অনেকেই মোবাইল ক্যামেরা বের করে নিয়ে সাপটির ভিডিও রেকর্ড করে নেন। কেউ আবার ছবি তুলতে থাকেন। অবশেষে ওই ব্যক্তি একটি কৌটোর মধ্যে সাপটিকে বন্দী করে নিয়ে চলে যান। এখনো পর্যন্ত এই ভিডিওটির দর্শক সংখ্যা সাড়ে সাত লক্ষেরও বেশি। ছয় হাজারের কাছাকাছি লাইক পড়েছে ভিডিওটিতে।

About admin2

Check Also

চার যুগ অপেক্ষা, অবশেষে প্রথম সন্তানের মা হলেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা! বিস্তারিত ভিতরে:

Binodontimes সাধারণত ৫০ বছর বয়সে অনেকে নাতি-নাতনিদের সঙ্গে সময় কাটান। আর ৭০ বছর হলে তো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *