Home / International / তালেবানি যুগের আগে যেমন ছিলেন আফগা’নিস্তানের মেয়েরা’বিস্তারিত ভিতরে’

তালেবানি যুগের আগে যেমন ছিলেন আফগা’নিস্তানের মেয়েরা’বিস্তারিত ভিতরে’

Biodontimes: গত রোববার (১৫ আগস্ট) আ’ফগা’নিস্তানের রাজধানী কাবুল দখলের মাধ্যমে কার্যত পুরো আ’ফগা’নিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তা’লেবানের হাতে চলে গেছে। এখন শুধু আনুষ্ঠানিকভাবে তা’লেবানের সরকার গঠনের অ’পেক্ষা।

তা’লেবান আ’ফগা’নিস্তান দখল করে নেয়ার পর থেকেই সেখানকার সাধারণ মানুষের মনে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে দেশটির নারীদের স্বাধীনতা ও নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করছে বিশ্ব মোড়লরা।

আ’ফগা’নিস্তানে এর আগেও তা’লেবানি শাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। সেই শাসন প্রতিষ্ঠার আগে কেমন ছিল আ’ফগা’নিস্তানের মে’য়েদের দৃশ্য, তা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আনন্দবাজার পত্রিকা। প্রতিবেদনে বলা হয়, ষাটের দশকের আ’ফগা’নিস্তানের সঙ্গে এখনকার দেশটি কখনোই মেলানো যায় না। বিশেষ করে মে’য়েদের চিত্র। মাত্র কয়েক দশক আগেও তাঁরা ছিলেন যথেষ্ট স্বাধীন। তখন তাঁদের পড়াশোনা করার অধিকার ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ে অগাধ আনাগোনা ছিল।

সে সময়ে মে’য়েদের পড়াশোনা কোনও বাঁ’ধা ছিল না। পাশাপাশি বোরখা পরা নিয়ে কোনও রকম বাধ্যতাও ছিল না। ষাটের দশকে মে’য়েরা পশ্চিমী পোশাক পরিধান করতেন। সে সময়ে আ’ফগা’নিস্তানে গোটা দুনিয়ার পর্যট’কদের আনাগোনা ছিল। তাই দেশটিতে পশ্চিমী সংস্কৃতির আদান-প্রদান চলত স্বাভাবিক নিয়মেই। ছে’লে-মে’য়েরা একসঙ্গে পড়াশোনা নিয়ে কোনও রকম নিষেধ ছিল না। ছে’লেদের সঙ্গে সমান তা’লে তাঁরা সব বিষয়ে পড়াশোনাও করতেন।

অনেক মে’য়েই ডাক্তারি নিয়ে পড়াশোনা করতেন। ছে’লেদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে মে’য়েদেরও কম্পিউটারের ক্লাস। প্রযু’ক্তি নিয়ে পড়াশোনায় পিছিয়ে ছিলেন না মে’য়েরা। আ’ফগা’নি মে’য়েরা সে সময়ে পড়াশোনা এবং কাজের জগতে যতটা দক্ষ ছিলেন, ততটাই সাজ নিয়ে শৌখিন ছিলেন। আ’ফগা’নি শৌখিনীদের নামডাক তখন ছিল বিশ্বজোড়া। নানা ধরনের পোশাকে সেই সময়ে ভরে থাকত মে’য়েদের আলমা’রি। স্কার্ট, ডাংগ্রি প্যান্ট, বেলবটম ট্রাউজারের মতো ষাট এবং সত্তরের দশকের পোশাক তখন আ’ফগা’নিস্তানে হামেশাই দেখা যেত। আ’ফগা’নি মে’য়েদের সাজ ধীরে ধীরে সুখ্যাতি অর্জন করে। আ’ফগা’নি কোটের কদর ছড়িয়ে পড়ে গোটা দুনিয়ায়। ফ্যাশন পত্রিকা ভোগও পৌঁছে যায় সে দেশে ফোটোশ্যুট করার জন্য।

পড়াশোনায় পিছিয়ে ছিলেন না মে’য়েরা। আ’ফগা’নি মে’য়েরা সে সময়ে পড়াশোনা এবং কাজের জগতে যতটা দক্ষ ছিলেন, ততটাই সাজ নিয়ে শৌখিন ছিলেন। আ’ফগা’নি শৌখিনীদের নামডাক তখন ছিল বিশ্বজোড়া। নানা ধরনের পোশাকে সেই সময়ে ভরে থাকত মে’য়েদের আলমা’রি। স্কার্ট, ডাংগ্রি প্যান্ট, বেলবটম ট্রাউজারের মতো ষাট এবং সত্তরের দশকের পোশাক তখন আ’ফগা’নিস্তানে হামেশাই দেখা যেত। আ’ফগা’নি মে’য়েদের সাজ ধীরে ধীরে সুখ্যাতি অর্জন করে। আ’ফগা’নি কোটের কদর ছড়িয়ে পড়ে গোটা দুনিয়ায়। ফ্যাশন পত্রিকা ভোগও পৌঁছে যায় সে দেশে ফোটোশ্যুট করার জন্য।

তা’লেবানি যুগে সংগীত নিষিদ্ধ হয়ে গেলেও সে সময়ে ছিল না। প্রচুর রেকর্ডও মিলত বড় বড় দোকানে এবং মে’য়েরা স্বাচ্ছন্দ্যে দোকান বাজারে যেতেন। মে’য়েদের চলাফেরা অবশ্য শুধু দোকান-বাজার পর্যন্তই সীমিত ছিল না। সিনেমা হল, পার্ক, যে কোনও জনসমাগমে তাঁরা যেতে পারতেন।

About admin2

Check Also

হিজাব না পরা নারীদের ‘কাটা তরমুজ’ বললেন তালেবান নেতা”বিস্তারিত ভিতরে”

Binodontimes: আন্তর্জাতিক ডেস্ক-হিজাব না পরা নারীদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন তালেবানের একজন নেতা। জি-নিউজের এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *