Breaking News
Home / National / রংপুরে প্রেমের টানে ভারতীয় কিশোরী, ধরা খেলো পুলিশের হাতে’বিস্তারিত ভিতরে’

রংপুরে প্রেমের টানে ভারতীয় কিশোরী, ধরা খেলো পুলিশের হাতে’বিস্তারিত ভিতরে’

Binodontimes: রংপুরে প্রেমের টানে ভারতীয় কিশোরী, ধরা খেলো পুলিশের হাতে
কাজের সন্ধানে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হু’গলি জেলায় গিয়ে প্রীতি পন্ডিতের সঙ্গে পরিচয় হয় রংপুরের যুবক মিলন ও তার বন্ধু হাবিবুর রহমানের সঙ্গে। মিলন ও হাবিবুর আড়াই বছর আগে রংপুর থেকে অ’বৈধ পথে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ও হুগলিতে গিয়ে রংমিস্ত্রীর কাজ শুরু করেন। এর পর মিলনের সঙ্গে প্রীতি পন্ডিতের প্রে’মের সম্প’র্ক গড়ে উঠে। পরে মিলন ও হাবিবুর রংপুরে ফিরে আসেন। কিন্তু থেমে থাকেনি মিলন আর প্রীতি পন্ডিতের প্রে’ম।

তাদের প্রেম চিরস্থা’য়ী করতে বিভিন্ন যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যম হোয়াটসআ্যাপ, মোবাইল ফোন, ইমো ও ফেসবুক মেসেঞ্জার, টুইটার ব্যবহার করে হৃদয়ের সম্প’র্ক এগিয়ে নিতে থাকে। এভাবে দীর্ঘ দুই বছর সম্প’র্ক চলার পর অবশেষে প্রেমের টানে প্রীতি প’ন্ডিত তার পরিবার ও দুই দেশের সীমান্ত র’ক্ষীদের ফাঁ’কি দিয়ে রংপুরে চলে আসেন। কিন্তু অ’বৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের দায়ে শনিবার রংপুর সদর থানার পুলিশ তাকে গ্রে’ফতার করে।

সঙ্গে প্রেমিক মিলন মিয়া ও তার বন্ধু হাবিবুর রহমানকেও পুলিশ হে’ফাজতে নেয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে রংপুর সদর কোতোয়ালি থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মিলন, প্রীতি ও হাবিবুরকে সদর কোতোয়ালি আমলি আদালতে হাজির করা হয়েছে। ওসি জানান, শনিবার বিকেলে রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার রানীপুকুর ইউপির নূরপুর বালাপাড়া গ্রাম থেকে তাদের গ্রে’ফতার করা হয়। প্রীতি পন্ডিত ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার কোতোয়ালি থানার ভাংত জাংলা গ্রামের মন্টু পন্ডিতের মেয়ে। তিনি গত ২৪ জুন যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে প্রেমিক মিলন মিয়ার গ্রামের বাড়ি রংপুর সদর উপজেলার সদ্যপুষ্কুরিণী ইউপির পালিচড়া ফা’জিলখাঁ নয়াপুকুওে চলে আসেন।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে প্রীতিকে নিয়ে মিলন তার বন্ধু হাবিবুরের সহায়তায় পার্শ্ববর্তী রানীপুকুরে কাছে আত্মীয় লতিফুলের বাড়িতে গিয়ে আ’ত্মগো’পনে থাকার চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে সেখান থেকে তাদের তিনজনকে গ্রে’ফতার করেন। অ’বৈধভাবে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করার দায়ে প্রীতি পন্ডিত পুলিশের হেফাজতে থানায় রা’খা হয়েছে জানিয়ে সদর কোতয়ালি থানার উপপরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম জানান, গত ২৪ জুন ভারত থেকে যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অ’বৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে রংপুরে আসেন প্রীতি। এরপর সে প্রেমিক মিলনের বাড়িতে বাড়িতে অবস্থান করছিল।

বিষয়টি জানার পর অভি’যানে নামে পুলিশ। পরে তাদের মিঠাপুকুর উপজেলার রানীপুকুর ইউপির নূরপুর বালাপাড়া গ্রামে আত্মীয় লতিফুল ইসলামের বাড়ি থেকে গ্রে’ফতার করা হয়।

প্রীতি বিনা পাসপোর্ট ও অনুমতি ছাড়া সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে অ’বৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে সদর কোতোয়ালি থা’নায় একটি মাম’লা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন। মাম’লার বাদী এসআই জাহাঙ্গীর আলম ভারতীয় তরুণীকে সেভ হোমে রাখার জন্য আমলি আ’দালতের বি’চারকের কাছে আবেদন করেছেন।

About admin2

Check Also

বাতিলের তালিকায় ২১০টি সংবাদপত্র

দেশের ২১০টি সংবাদপত্র বাতিলের তালিকায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *