Breaking News
Home / Uncategorized / বিদেশি শিল্পীদের সঙ্গে ইসলামী সঙ্গীত নিয়ে কাজ করছেন সাঈদ আহমদ

বিদেশি শিল্পীদের সঙ্গে ইসলামী সঙ্গীত নিয়ে কাজ করছেন সাঈদ আহমদ

Binodontimes: ওয়াজের সময় কথার ফাঁকে ফাঁকে ইসলামী সঙ্গীত গাওয়ার প্রচলন শুরু করেছিলেন মাওলানা আইনুদ্দীন আল আজাদ। কিন্তু, তখন বিষয়টি তেমন জনপ্রিয়তা লাভ করেনি। বর্তমানে মাওলানা সাঈদ আহমদসহ অনেক বক্তাই ওয়াজে কথার ফাঁকে ফাঁকে ইসলামী সঙ্গীত গান। এতে শ্রোতারা আলোচনা শুনতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

বলছিলাম, দেশের জনপ্রিয় ইসলামিক মিউজিক ব্র্যান্ড কলরব শিল্পীগোষ্ঠীর নির্বাহী পরিচালক সাঈদ আহমদের কথা। তিনি একাধারে শিল্পী, গীতিকার, সুরকার এবং ইসলামী বক্তা। সাঈদ আহমদ কলরবে যোগ দেন ২০০৫ সালে। তখন থেকেই ইসলামী সঙ্গীত নিয়ে নিয়মিত কাজ করছেন।

২০০৬ সালে তার প্রথম এলবাম ‘হক কথা’ প্রকাশ হয় কলরব অডিও হাউস থেকে। ২০০৮ সালে দ্বিতীয় এলবাম ‘চাই না এমন দেশ’ এবং ২০১৩ সালে ‘বদলে যাও’ বের হয়। পাশাপাশি ২০০৮ সাল কলরবের সহযোগী পরিচালকের দায়িত্বও পালন করছেন।

সাঈদ আহমদের সাড়া জাগানো সঙ্গীতের তালিকায় রয়েছে, ‘আমি দেখিনি তোমায়, চোখের তারায়’, ‘রুখতে হবে দাজ্জাল’, ‘বিশ্বনবীর অপমানে যদি‘, ‘ফেসবুক; এবং ‘কেমন মুসলমান’।

এছাড়াও তার বেশিরভাগ সঙ্গীত ইসলামী অঙ্গনে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দেয়। সাঈদ আহমদ বর্তমানে সৌদি আরব, মালয়েশিয়া, ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশের বিখ্যাত শিল্পীদের সঙ্গে ইসলামী সঙ্গীত প্রকাশের উদ্যোগ নিয়েছেন। যার কাজ চলমান। অচিরেই সেগুলো আলোর মুখ দেখবে বলে জানান তিনি।

সাঈদ আহমদের যত স্বপ্ন ও আকাঙ্ক্ষা সব ইসলামী সঙ্গীত নিয়েই। তার ভাষায়, আমি চাই ভবিষ্যতে বাংলাভাষী সব দেশের ও সব বর্ণের মানুষের কাছে ইসলামী সঙ্গীত জনপ্রিয় হোক। আমাদের ইসলামী সঙ্গীতের কথায় সাধারণত আল্লাহ-রাসুলের প্রশংসার পাশাপাশি নীতি কথাই বেশি থাকে। যা সমাজ পরিবর্তনে অনেক ভূমিকা রাখে বলে আমার বিশ্বাস।

About admin

Check Also

ভারতের সঙ্গে খেলায় শোয়েবকে ‘জিজাজি’ বলে স্লোগান দর্শকদের (ভিডিও)

দীর্ঘ ২৮ মাস পরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের আঙিনায় মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং পাকিস্তান। রোববার দুবাইয়ে টি-টোয়েন্টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *