Home / Uncategorized / পড়ার সময় ঘুমানোর কারনে দুই ছাত্রের মাথা ফাটালেন মাদ্রাসার শিক্ষক!

পড়ার সময় ঘুমানোর কারনে দুই ছাত্রের মাথা ফাটালেন মাদ্রাসার শিক্ষক!

Bonodontimes: ফরিদপুরের নগরকান্দায় এক মাদরাসা শিক্ষকের নি<র্যাতনে দুই শিক্ষার্থী আ<হত হওয়ার অ<ভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, তালিমে ঘুমানোয় ক্ষি<প্ত হয়ে এ দুজনের মাথা ফা<টিয়ে পালিয়ে যান ওই শিক্ষক। বুধবার (৩০ জুন) ভোরে উপজেলার কাইচাইল ইউনিয়নের সুতারকান্দা দারুস সালাম ইসলামীয়া মাদরাসায় এ ঘটনা ঘটে। আ<হত শিক্ষার্থীরা হচ্ছে, উপজেলার জিয়াকুলী গ্রামের বাদল মোল্যার ছেলে নিজাম (১০) ও জলফত জমাদ্দারের ছেলে আশিক (১১)। দুজনই ওই মাদরাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র।

জানা যায়, বুধবার মাদরাসায় ফজরের নামাজের পর শিক্ষার্থীদের নিয়ে তালিম চলছিল। এসময় হেফজ বিভাগের ছাত্র নিজাম ও আশিক বসে ঘুমাচ্ছিলেন। এটি দেখতে পেয়ে মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ রকিবুল ইসলাম ওই দুই ছাত্রকে দাঁড় করান। পরে তাদের একে-অপরের মাথায় সজোরে আ<ঘাত করেন। এতে তাদের মাথা ফে<টে র<ক্ত ঝরতে শুরু করে।

পরে পাশ্ববর্তী পোড়াদিয়া বাজারে গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছে নিয়ে ওই দুই ছাত্রের মাথায় সে<লাই দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়। এরপর থেকে প<লাতক রয়েছেন ওই শিক্ষক।

আহত ছাত্র নিজামের বাবা বাদল মোল্যা অ<ভিযোগ করেন, ‘আমার ছেলে হেফজ বিভাগে পড়ে। নিজাম ফজরের নামাজ পড়ে মাদরাসায় বসে তালিম শুনছিল। এসময় আশিক নামের আরেকটি ছেলে ও সে ঘুমাচ্ছিল। এতে ক্ষি<প্ত হয়ে মাদরাসা শিক্ষক তাদের একে-অপরের মাথায় আ<ঘাত করেন। এতে মাথা ফে<টে যায় তাদের। আমার ছেলের মাথায় চারটি সেলাই করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে মাদরাসার মোহতামিম আবু বকর সিদ্দিক বলেন, ‘ঘটনার সময় আমি মাদরাসায় ছিলাম না। এটি একটি অ>নাকাঙ্খিত ঘটনা। ওই শিক্ষকের বি>রুদ্ধে মাদরাসা কমিটির পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেতী প্রু বলেন, ‘দুই শিক্ষার্থীকে উন্নত চিকিৎসা দেয়ার জন্য অভিভাবকদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। আর অ>ভিযুক্ত শিক্ষকের বি>রুদ্ধে আ>ইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

About admin

Check Also

অন’লাইনে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’ জন্ম দিলেন নারী

দ্বিতীয় সন্তান নিতে আগ্রহী হন এক ব্রিটিশ নারী। কিন্তু ৩৩ বছর বয়সী স্টেফনি টেলর নতুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *