Breaking News
Home / Uncategorized / ওমানে মানুষের জীবন বাঁচাতে ১৬৬ বার রক্ত দিয়েছেন তিনি ‘বিস্তারিত ভিতরে’

ওমানে মানুষের জীবন বাঁচাতে ১৬৬ বার রক্ত দিয়েছেন তিনি ‘বিস্তারিত ভিতরে’

রক্ত”দানের মাধ্যমে রো’’গীদের জীবন বাঁচাতে ওমানি নাগরিক আহমেদ বিন হামাদ আল-খরাসির” যাত্রা ৩৪ বছর আগে ১৯৮৬ সালে শুরু হয়েছিল, যখন তাঁর বয়স ছিল ২৩ বছর।

আমি পরিবার নিয়ে বে’ড়ানোর সময় কেউ একজন আমাদেরকে তার পরি”বারের সদস্যকে র’ক্তদানের জন্য সহায়তা করতে বলেছিল। আমরা জানতে পেরে”ছিলাম যে, আমার স্ত্রীর একই গ্রুপের” র’ক্তের অধিকারী এবং আমার স্ত্রী তার র’ক্ত দিতে রাজি হওয়ায় অবিলম্বে

মাসকাট ফিরে এসে”ছিলেন” তিনি স্মরণ করেন। ৫৮ বছর বয়েসী আহমেদ বিন হামাদ বছরে গড়ে পাঁচবার রক্ত​​দান করেন। এ পর্যন্ত তিনি ১৬৬ বারেরও বেশি র’ক্ত দিয়েছেন। তিনি শুধু নন, প্রয়ো”জনের সময় নিঃস্বার্থ”’ভাবে হাসপাতালে র’ক্ত ​​দান করে পরিবারের বাকি সদস্যরাও তার পদাঙ্ক অনু”সরণ করেছেন।

তাঁর স্ত্রী ২৪ বার র’ক্ত দিয়েছেন এবং তার চার কন্যা মোট ১২ বার র’ক্ত দিয়েছেন। সব”’মিলিয়ে তার পরিবার ২০২ ব্যাগ বা মোট ৯০ হাজার ৪৫০ মিলিমিটার র’ক্ত দান করেছে। নিজের র’ক্তদানের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে ওমান নিউজ এজেন্সিকে আহমেদ বলেন, রক্ত”দানের কারণে তিনি কোনও সমস্যায় পড়েননি।

আমি যখনই র’ক্ত ​​দান করি তখন অনুভব করি যে আমার হৃদয় এবং আমার শরীর পুরোপুরি সক্রিয় রয়েছে। উপরন্ত, রক্ত​​দান সম্ভাব্য” স্বাস্থ্যের সমস্যাগু’লি সনাক্ত করতে সহায়তা করে।” তিনি গর্বের সাথে বলেন,”রক্ত দান করা অন্যকে সাহায্য করার ক্ষেত্রে”’ আমার আত্ম”’বিশ্বাসকে বাড়িয়ে তোলে, কারণ কারও জীবন বাঁচাতে এর মূল্য কী তা আমি বুঝতে পারি,

আপনারাও বুঝতে পারবেন। ডাক্তাররা আমাকে না বলা পর্যন্ত থামার পরি”’কল্পনা আমার নেই, আমি স্বেচ্ছায় র’ক্তদান করে যাবো। এর পরে আমি র’ক্তদানের গুরুত্ব সম্পর্কে সচে’তনতা ছড়াতে প্রচা’রণায় নামবো।” টাইমস অব ওমানের প্রতিবেদনে বলা হয়, ক’রো’না ম’হামা’রির শুরু থেকেই এ পর্যন্ত ১২ বার স্বেচ্ছায় র’ক্ত দিতে এগিয়ে এসেছেন আল-খরাসি।

তিনি বলেন” ম’হামা’রি চলা’কালীন রক্তের প্রয়ো”জন খুব বেশি। কো’ভি’ড-১’৯ এর বিরু’দ্ধে অ্যা’ন্টিব’ডি তৈরি করতে একজনের র’ক্তে তিনজন রো’গীর উপকার করতে পারে। ওমানে ৭ হাজার ইউনিটেরও বেশি র’ক্তের প্রয়োজন রয়েছে। আমি কমি”’উনিটিকে এই কাজের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছি।” ওমানের র’ক্তদানের” কর্মসূচিগু’লি বেশির ভাগই স্বাস্থ্য

মন্ত্রণালয়ের ব্লাড ব্যাংক পরিষেবা (ডিবিবিএস) বিভাগ দ্বারা পরিচালিত হয়। মাঝে মাঝে তারা সামাজিক এবং কর্পোরেট সংস্থার সহ”যোগিতাবো কর্মসূচি পরিচালনা করে থাকে। আহমেদ পরামর্শও দিয়েছেন, প্রতিটি উইলিয়াতে ওয়ালিসের তত্ত্বাবধানে স্বেচ্ছা”সেবক কমিটি গঠন করা, পাশাপাশি স্বেচ্ছায় র’ক্তদানের সংস্কৃতি গড়ে তুলতে এই কমিটিগু’লির জন্য বার্ষিক প্রতি”যোগিতার আয়োজন করার।

About admin

Check Also

এই কুলাঙ্গাররাই আমার স’র্ব’না’শ করেছে

Binodontimes: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় দায়ের করা দু’টি মামলা শুক্রবার রাতে গ্রহণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *